দেশের অগ্রগতির জন্য চাই পানি সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা : প্রধানমন্ত্রী

প্রকৃতিনির্ভর পানি সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের ও ২০৪১ সালের আগেই উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হওয়ার ক্ষেত্রে দৃশ্যমান অগ্রগতি সাধিত হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।

আগামীকাল বিশ্ব পানি দিবস উপলক্ষে বুধবার দেয়া এক বাণীতে তিনি এ কথা বলেন। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘পানির জন্য প্রকৃতি’।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও বিশ্ব পানি দিবস পালিত হচ্ছে জেনে আনন্দ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পানি দিবস পালনের মাধ্যমে পানির সুষ্ঠু ব্যবহার, অপচয় ও দূষণরোধের বিষয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধি পাবে।

বাণীতে শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার পানি সম্পদ উন্নয়নে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে যা ২০৩০ সালের মধ্যে বাস্তবায়নের মাধ্যমে সকলের জন্য নিরাপদ পানির নিশ্চয়তা দেবে এবং প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষা ও পানি দূষণ কমাতে সক্ষম হবে।

তিনি বলেন, উন্নয়ন কার্যক্রম সম্পাদনের জন্য আমাদের নির্ভর করতে হয় প্রকৃতি, পরিবেশ ও পানির ওপর। পরিবেশ ও প্রকৃতির বিঘ্ন না ঘটিয়ে আমাদের টেকসই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, নদীমাতৃক বাংলাদেশে পানির বহুমুখী ব্যবহার রয়েছে। সেচ, পরিবহণ ইত্যাদির জন্য পানির চাহিদা ব্যাপক। জনগণের চাহিদা পূরণে পানির আহরণ, উন্নয়ন ও সুষ্ঠু ব্যবহারের জন্য লাগসই পরিকল্পনা আবশ্যক।

তিনি বলেন, সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা, ভিশন-২০২১ ও ডেল্টা প্ল্যান-২১০০ এর আলোকে পানির সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় সরকার কাজ করে যাচ্ছে।

বাণীতে প্রধানমন্ত্রী বিশ্ব ‘পানি দিবস ২০১৮’ এর সার্বিক সাফল্য কামনা করেন।