বৃদ্ধাকে বিয়ে করলো ২৪ বছরের যুবক, স্ত্রীর নাতি-নাতনি ১৭ জন

ভালোবাসার কোনো বয়স হয় না। ১৭ জন নাতি-নাতনির এক দাদি বাস্তবে তার প্রমাণ দিলেন। তিনি বিয়ে করলেন নাতির বয়সী বন্ধুকে। বয়স তার ২৪ বছর।

বলছি ৬১ বছর বয়সী শেরিল ম্যাকগ্রেগর নামক এক বৃদ্ধার কথা। তার স্বামীর নাম কুরেন ম্যাককেন। নেটমাধ্যমে লাইভ দেখানো হলো সেই বিয়ের অনুষ্ঠান। তবে আফসোস করে নববধূ বলছেন, রাস্তায় বের হলে বেশির ভাগ মানুষ আমার স্বামীকে আমার নাতি বলে চিহ্নিত করে। এটা ভালো লাগে না।

শেরিল ম্যাকগ্রেগর এবং তার ২৪ বছর বয়সী স্বামী। শেরিল ম্যাকগ্রেগরের নাতির একটি খাবারের দোকান রয়েছে। সেই দোকানেই কাজ করতেন কোরান ম্যাককেইন। মাত্র ১৫ বছর বয়সে শেরিলের সঙ্গে পরিচয় হয় কোরানের। কারণ, কোরান তার ছেলের দোকানে কাজ করতে শুরু করেন ওই বয়সে। সেই যোগাযোগ প্রাথমিক ভাবে গড়ে উঠলেও শেষে তা বন্ধ হয়ে যায়।

এরপর ২০২০ সালে তাদের মধ্যে কথাবার্তা হয়। তখন থেকে নিয়মিত কথা হতে থাকে। শেষে এক দিন একটি ক্যাফেতে হঠাত্‍ই আংটি নিয়ে বিবাহ প্রস্তাব দেন কোরান।

শেরিল ম্যাকগ্রেগরের নাতির একটি খাবারের দোকান তারা। কোরান বলেন, শেরিল খুবই নরম মনের মানুষ। তিনি সুন্দরী, সত্‍ ও আবেগপূর্ণ। সেই কারণেই ওকে আমার পছন্দ হয়। আমি যখন ওকে বিয়ের প্রস্তাব দেই, তখন সে অবাক হয়েছিলেন। এর আগে একবারও বিয়ের সম্পর্কে আবদ্ধ হননি শেরিল।

এত দিন পর সম্পর্কে আসতে পেরে শেরিল খুশি। একলা মায়ের দায়িত্ব পালন করেছেন শেরিল। তার সাত সন্তান রয়েছে। সন্তানরা সবাই এই সম্পর্ককে মেনে নিয়েছেন। আপাতত বিয়ের আনন্দে মেতে রয়েছে পরিবারের সবাই। তথ্য-ডেইলি বাংলাদেশ

আজকের বাজার/আখনূর রহমান